স্মার্টফোন ঠান্ডা রাখার কৌশল জানুন

স্মার্টফোন ঠান্ডা রাখার কৌশল জানুন

এখনকার বেশিরভাগ স্মার্টফোনের ব্যাটারি খোলা যায় না। এছাড়াও দিনকে দিন ফোন পাতলা হচ্ছে। এতে করে ফোনের ভেতরে বাতাস প্রবাহিত হতে পারছে না। ফলে অল্প সময় ব্যবহারেই ফোন গরম হচ্ছে। ফোন অত্যাধিক ব্যবহারে বিস্ফোরণের আশংকা রয়েছে।

প্রতিটি ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস নির্দিষ্ট তাপমাত্রা পর্যন্ত সঠিক থাকে। কিন্তু তাপমাত্রা বেশি হলেই বেশ কিছু সমস্যা দেখা দেয়। তুলনামূলক বেশি তাপমাত্রা হলেই হ্যাং হতে শুরু করে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস। ফলে ম্যালফাংশেন হয়। হ্যাংও হয়।

সরাসরি সূর্যালোকে ফোন রাখবেন না

প্রতিটি ফোন যেহেতু সবসময় প্রসেস হয় তাই প্রতিটি ফোনই হিট হয়। কিন্তু সরাসরি সূর্যালোকে ফোন রেখে দিলে ফোন আরও গরম হতে শুরু করে। কিন্তু প্রতিটি ফোন নির্দিষ্ট তাপমাত্রা পর্যন্ত সঠিকভাবে কাজ করতে পারে। সেক্ষেত্রে তাপমাত্রা বেশি হলে ফোনের প্রসেসিং ইউনিটের সমস্যা তৈরি হয়। ফোন হ্যাং হয় এবং সঠিকভাবে কাজ করতে পারে না।

ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুন

ফোনের ব্রাইটনেস যত বেশি রাখবেন ফোন তত বেশি গরম হতে পারে। সেকারণে তাপমাত্রা বেশি থাকলে ফোনের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুন। এর ফলে ফোনের তাপমাত্রা থাকবে একদম সঠিক। এবং ফোন সঠিকভাবে ব্যবহার করা যাবে।

ফোন কভার খুলে রাখুন

ফোনের কভার থাকলে ফোন গরম হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তার কারণ, কভার থাকলে ফোনের গরম হাওয়া বের হতে সমস্যা হবে। এবং সেকারণে ফোন হ্যাং হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। কিন্তু ফোনের কভার না থাকলে গরম হওয়ার সম্ভাবনা তুলনামূলক অনেক কম।

অব্যবহৃত অ্যাপস বন্ধ রাখুন

অনেক অ্যাপস ব্যবহার না করা হলেও সেগুলো ব্যাকগ্রাউন্ডে চলতে থাকে। তাই সেই অ্যাপসগুলো ফোনের প্রসেসিং ইউনিটের উপর চাপ সৃষ্টি করে। এবং এর ফলে ফোন গরম হয়।

ফোনের এয়ারোপ্লেন মোড ব্যবহার

প্রতিটি ফোনেই রয়েছে এয়ারোপ্লেন মোড। দীর্ঘক্ষণ ব্যবহারের পর ফোন গরম হলে এয়ারোপ্লেন মোড চালু করুন। এর ফলে ফোনের যাবতীয় প্রসেস বন্ধ হয়ে যায় এবং সঠিকভাবে কাজ করতে পারে।

COMMENTS